Leave a comment

মুসলিম বিবাহ রেজিস্ট্রেশন বা নিবন্ধন

##রেজিস্ট্রেশন করা হলে কি কোনো উপকার পাওয়া যায়?

– বিয়ের রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করলে যে সনদ পাওয়া যায় সেটি হলো একটি বৈধ বিয়ের দলিল;

– রেজিস্ট্রেশনের ফলে বিয়ের সব তথ্য সরকারের তথ্য ভান্ডারে নথিভুক্ত হয় বলে এর সত্যতা অস্বীকার করা যায় না;

– বিবাহে দুই পক্ষই বিশেষ করে নারীরা আইনে প্রদত্ত সকল সুরক্ষাসহ, তাদের অধিকার নিশ্চিত করতে পারে;

– স্ত্রীরা স্বামীদের প্রতারণার স্বীকার হলে এই রেজিস্ট্রেশন এর সনদই একমাত্র রক্ষা কবচ হিসেবে কাজ করবে;

– স্বামীর মৃত্যু পরবর্তীকালে স্বামীর সম্পত্তির বৈধ অংশ সহ অন্যান্য দাবি আদায়ে এই দলিলটি অত্যাবশ্যকীয়;

– এমনকি তালাক বা বিবাহ বিচ্ছেদের সময়ও বিবাহের রেজিস্ট্রেশন একটি অত্যাবশ্যকীয় দলিল;

– স্বামীর অবর্তমানে সন্তানের বৈধ পরিচয় নিশ্চিত করতে রেজিস্ট্রেশন প্রয়োজন হতে পারে;

– বিদেশ গমনের ক্ষেত্রেও কিছু রাষ্ট্রের আইন অনুযায়ী ভ্রমণে আগ্রহী কোন নারী যদি নিজের ব্যক্তিগত তথ্য প্রদান কালে নিজেকে বিবাহিতা পরিচয় দিলে বিবাহের প্রমাণ হিসেবে বিয়ের রেজিস্ট্রেশনের একটি সনদ প্রয়োজন হতে পারে;

– যদিও বিয়ের রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করার ফলে নারীরাই বেশি উপকৃত হয়ে থাকেন কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় পুরুষদের ও অনেক হয়রানীরও শিকার হয়ে থাকে, যেমন – বিয়ের উপযুক্ত প্রমাণ না দেখাতে পারলে অনেক সময় ছেলেরা অপহরণ সহ নানা রকম হয়রানীর।

##বিবাহের রেজিস্ট্রেশন না করা হলে কোনো বিচার বা শাস্তির বিধান আছে কি?

মুসলিম বিবাহ এবং তালাক নিবন্ধন আইন, ১৯৭৪ [Muslim Marriages and Divorces (Registration) Act, 1974] এর ৫(৪) ধারা মোতাবেক প্রতিটি “বিবাহ সম্পর্কে অবহিত এবং নিবন্ধনকরন” – এর ব্যাপারে ব্যাখ্যা করা হয়েছে। রেজিস্ট্রী ব্যতিরেকে বিবাহ হয়ে গেলে বিয়ের ত্রিশ দিনের মধ্যে বর পক্ষকে উহা নিকাহ রেজিস্ট্রারকে জানাতে হবে, অন্যথায় মুসলিম বিবাহ ও তালাক নিবন্ধন আইন, ১৯৭৪ অনুসারে দুই বছর পর্যন্ত বিনাশ্রম কারা দন্ড অথবা তিন হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হতে পারে ।

Muslim Marriage and Divorce (Registration) Act, 1974 provides that every marriage solemnized under Muslim Law shall be registered and for this purpose the Government shall appoint Marriage Registrars. Every Marriage Registrar shall maintain separate Register of marriages and divorces in the prescribed manner. The Muslim Marriage and Divorces (Registration) Rules, 2009 are framed to determine the qualifications for appointment of a Marriage Registrar, fees payable to a Marriage Registrar and any other matter ancillary thereto. Candidates seeking licence of a Marriage Registrar must possess Alim Certificate from a Madrasha Board or University and must be between 21 to 40 years of age. An application for appointment of a Marriage Registrar shall be made in the prescribed form to the Secretary of Advisory Committee. The Advisory Committee shall advice the Government in regard to the selection of a Marriage Registrar. The service of a Marriage Registrar is not a government service. A Marriage Registrar shall hold office till expiry of 65 years of age.
Prescribed fees for Marriage and Divorce registrations:-
A Nikah Registrar shall, charge for registration of a marriage a fee at the rate of taka ten for the dower of every one thousand taka or part thereof, subject to a minimum of taka one hundred and a maximum of taka four thousand.
A Nika Registrar shall charge a fee of taka two hundred for registration of a divorce.
Contact Deputy Secretary Registration Room No.622 Phone: 88+02+7161556

From

Sources-www.lawofwomen.org

লেখক :
সোয়েব রহমান
এলএল.এম.
অ্যাডভোকেট

Posted from
Shoaib Rahman
LL.M. Advocate

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: