Leave a comment

বিয়ের আগে কোনও মহিলা ও পুরুষের মধ্যে অনেক দিন ধরে যৌন সম্পর্ক থাকে। কোনও কারণে যদি তাঁদের বিয়ে না হয় , তবে ধর্ষণের অভিযোগ আনলে তা গণ্য হবে না বলে রায় দিল বম্বে হাইকোর্ট।

http://m.eisamay.com/nation/Pre-marital-sex-not-shocking-every-breach-of-promise-to-marry-is-not-rape-Bombay-HC/articleshow/45668356.cms

বিয়ের আগে কোনও মহিলা ও পুরুষের মধ্যে অনেক দিন ধরে যৌন সম্পর্ক থাকে। কোনও কারণে যদি তাঁদের বিয়ে না হয় , তবে ধর্ষণের অভিযোগ আনলে তা গণ্য হবে না বলে রায় দিল
বম্বে হাইকোর্ট। অনেকেই এই রায়কে বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটে এক গুরুত্বপূর্ণ ঘটনা বলছেন।

কারণ সাম্প্রতিক অতীতে এমন অনেক ঘটনাই দেখা গিয়েছে , যেখানে পুরুষ ও মহিলার মধ্যে দীর্ঘ দিনের শারীরিক সম্পর্ক ছিল। পরে কোনও কারণে বিয়ে না হলে অনেকেই পুরুষ সঙ্গীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ আনতে দ্বিধা করতেন না। অনেকে প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্যেও এমনটা করেছেন। জাস্টিস
মৃদুলা ভাটকরের এজলাসে একটি মামলার শুনানির প্রেক্ষিতে এই রায় দেওয়া হয়েছে।মামলাটি হয় ২০১৩ সালে। সমস্যা সেই
একটাই। এ ক্ষেত্রে অভিযুক্ত ও অভিযোগকারিনী দু ‘ জনই আইনজীবী। নাম রাহুল এবং সীমা। ১৯৯৯ সাল থেকে তাঁদের মধ্যে ভালোবাসার সম্পর্ক তৈরি হয়। এর পর বহুবার তাঁরা শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হন। ১০বছর পর বাহুল জানান , পারিবারিক কারণে তিনি সীমাকে বিয়ে করতে পারবেন না। সীমা এঘটনায় রাহুলকে আত্মহত্যার হুমকি দেন।

২০০৯ থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত সম্পর্ক প্রায় না থাকলেও যৌন সম্পর্ক ছিল তাঁদের মধ্যে। সীমা এক সময় গর্ভবতীও হয়ে পড়েন। এর পর থেকেই ব্ল্যাকমেল করার মাত্রা আরও বাড়ে। রাহুল পুলিশে একটি জাইরি করে রাখেন গোটা ঘটনাটি জানিয়ে। অন্য দিকে ,রাহুলের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ জানান সীমা। গ্রেপ্তারির হাত থেকে বাঁচতে আগাম জামিনের আবেদন করেন রাহুল। সেই শুনানিতেই জাস্টিস মৃদুলা ভাটকর এই রায় দেন। তিনি আরও বলেন , ‘ এখন বড় শহরগুলিতে সেক্স নিয়ে ট্যাবু অনেকটাই কমেছে। শিক্ষিত মহিলারা কার সঙ্গে শারীরিক
সম্পর্কে লিপ্ত হবেন , বা কার ঔরসে মা হবেন, তা নির্বাচন করার পূর্ণ অধিকার রয়েছে তাঁর। তার মানে এই নয় ,বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে গেলেই সে ক্ষেত্রে ধর্ষণের অভিযোগ আনা যাবে।’ তিনি রায়ের সহ্গে একটি নির্দেশও দিয়েছেন।

তাতে বলা হয়েছে, দু ‘ টি ক্ষেত্রে ধর্ষণের কথা বিবেচনা করা হতে পারে।

এক , যদি কোনও স্বল্প শিক্ষিত বা অশিক্ষিত মহিলাকে ভুলিয়ে –
ভালিয়ে যৌন সম্পর্ক করা হয় ,তবে ধর্ষণের মামলা রুজু হতে পারে।

দুই ,স্ত্রী থাকা সত্ত্বেও সেটা লুকিয়ে অন্য মহিলার সঙ্গে যৌন সম্পর্ক করলে সেই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা রুজু হবে।

Posted from Advocate Shoaibur Rahman Shoaib

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: